কওমী মাদ্রাসার ছাত্র ভাইয়েরা যেভাবে মদীনা ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয় আবেদন করবেন- islamic University of Madina admission - StudyinfoBD.Com - লেখা-পড়া বিষয়ক সকল তথ্য এখানেই

Breaking

Wednesday, February 12, 2020

কওমী মাদ্রাসার ছাত্র ভাইয়েরা যেভাবে মদীনা ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয় আবেদন করবেন- islamic University of Madina admission

আস্সালামু আলাইকুম । আশা করি সকলে ভাল আছেন । কওমি মাদরাসা থেকে যারা  মদিনা বিশ্ববিদ্যালয় এ ভর্তি হতে চান তাদের জন্য কিছু গাইড লাইন নিচে দেওয়া হলো- আশা করি উপকৃত হবেন।


দীর্ঘদিন থেকে এই প্রচেষ্টায় ছিলাম যে, কখন সে সুযোগ আসবে - কওমি মাদ্রাসার ছাত্র ভাইয়েরা মদীনা বিশ্ববিদ্যালয় সহ সৌদি আরবের অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদনের সক্ষমতা লাভ করতে পারবে। আলিয়া বা কলেজ থেকে যারা পড়াশোনা করেন, তারা অনায়াসে আবেদন করতে পারেন। কিন্ত, সরকারি স্বীকৃতি না থাকায় কওমী মাদ্রাসার ছাত্র ভাইয়েরা আবেদনের পথে বাঁধা ছিল।
আলহামদুলিল্লাহ! সেই বাঁধা এখন অনেকটা দূরীভূত। এখন থেকে চাইলে কওমী মাদ্রাসার ছাত্র ভাইয়েরাও সৌদি আরবে উচ্চ শিক্ষার জন্য আবেদন করতে পারবেন।
এ সম্পর্কে স্ব-বিস্তার আলোচনা নিচে এক এক করে তুলে ধরলাম। পুরা পোস্ট না পড়ে, অযথা প্রশ্ন বা এলোপাতাড়ি ইনবক্সে মেসেজিং থেকে বিরত থাকবেন আশাকরি। পোস্ট পড়ে অনুর্ধ্ব কোন প্রশ্ন থাকলে ভদ্রতার সহীত কমেন্টে প্রশ্ন করবেন। আপনার উত্তর দেওয়া হবে ইনশাআল্লাহ!
→ কওমীর সার্টিফিকেট দিয়ে সৌদি আরবের যেসব বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদন করা যাবে -
১. মদীনা ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়
২. কিং আব্দুল আজীজ বিশ্ববিদ্যালয়
৩. কিং সাউদ বিশ্ববিদ্যালয়
৪. ইমাম মুহাম্মাদ বিন সাউদ ইউনিভার্সিটি
৫. তায়্যিবাহ ইউনিভার্সিটি
পুনঃ- আবেদনের সময় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিন্ন টাইমে হয়ে থাকে। তবে এই মুহুর্তে কেবল মদীনা বিশ্ববিদ্যালয় আবেদন চলছে৷
→ আবেদনের জন্য যে সব শর্ত প্রযোজ্য -
১. একটা ভ্যালুড পাসপোর্ট থাকতে হবে৷
২. বয়স পচিশ এর ভিতরে হতে হবে৷
৩. রেজাল্ট সর্বনিম্ন প্রথম শ্রেণীর হতে হবে৷
৪. শারীরিক সুস্থ থাকতে হবে৷
৫. হাফিজে কোরান হলে ভালো হয়।
→ আবেদনের জন্য যেসব কাগজপত্র প্রস্তুত রাখতে হবে -
১. দাওরা হাদিসের সার্টিফিকেট।
২. দাওরা হাদিসের মার্ক সিট।
৩. সানাবিয়্যার সার্টিফিকেট।
৪. সানাবিয়্যার মার্কসিট ।
[[ উপরের চারটি আরবীতে থাকে৷ এগুলোকে ইংরেজিতে অনুবাদ + নোটারী করতে হবে ]]
৫. হিফজ সার্টিফিকেট।
৬. হেলথ সার্টিফিকেট।
৭. জন্ম সার্টিফিকেট।
৮. টেস্টিমোনিয়াল বা মাদ্রাসা থেকে একটা প্রশংসা পত্র।
[[ এগুলো বাংলা বা ইংরেজিতে হলে আরবীতে অনুবাদ+নোটারী করে নিতে হবে ]]
৯. দু'টা তাজকিয়া বা প্রশংসা পত্র।
[[ সিলেটের ভাইয়েরা মাওলানা শাহ নজরুল ইসলাম সাহেব ও মাওলানা বদরুদ্দীন বিন ইসহাক আল-মাদানী হাঃ থেকে নিবেন ]]
[[ চিটাগং এর ভাইয়েরা মাওলানা সুলতান যাওক নাদাভী ও আফীফ আল-মাদানী হাঃ সাহেব থেকে নিবেন ]]
[[ বাকি অন্যান্য জেলার ভাইয়েরা নিজের ইচ্ছামত প্রসিদ্ধ কোন দুই শায়খ থেকে নিয়ে নিবেন ]]
১০. হিফজ প্রতিযোগিতা / আরাবিক কোর্স / সারফ-নাহু কোর্স / ক্বারীয়ানা কোর্স ইত্যাদির সার্টিফিকেট থাকলে প্রস্তুত করে রাখবেন।
১১. পাশাপাশি আলিম/ইন্টার উত্তীর্ণ হলে সেগুলোও সাবমিট করবেন। না থাকলে অসুবিধা নাই।
১২. ৬*৪ সাইজের টুপি ও চশমা ছাড়া ছবি লাগবে৷
পুনঃ- মদীনা বিশ্ববিদ্যালয় আবেদন করতে হলে এই বারো প্রকারের কাগজ লাগবেই। সবগুলো স্কেন করে একটা ফাইলে করে সর্বোচ্চ ২০০ কেবির পিডিএফ ও জেএফজি ফরমেট করে রাখতে হবে।
→ স্কলারশিপ হিসেবে যা পাবেন -
আল্লাহ চাহে তো চান্স পেলে এবং সবকিছু সহজ হয়ে বিশ্ববিদ্যালয় পৌঁছে গেলে আপনি স্কলারশিপ হিসেবে যা কিছু পাবেন, তার সংক্ষিপ্ত একটা ডাটা -
১. প্রতি মাসে ৮৫০ রিয়াল বৃত্তি।
২. উচ্চ মানসম্পন্ন ফ্রি আবাসন ব্যবস্থা।
৩. ডরমেটরিতে উচ্চ মানসম্পন্ন স্বল্প মূল্যে খাবার।
৪. টিউশন ফি, ভীসা ফী ও পরীক্ষার ফি মওকুফ।
৫. প্রতি বছর ছুটি কাটাতে দেশে আসার জন্য আবডাউন ফ্রি বিমান টিকেট।
৬. বিশ্ববিদ্যালয়ের খরচে হজ্জ করা।
৭. বাসস্থানের জন্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র।
৮. বিনামূল্যে বিভিন্ন কোর্সে অংশগ্রহণের সুযোগ।
৯. প্রতি বছর বই কেনার জন্য পাবেন১০০০ রিয়াল।
১০. মুমতাজ গ্রেড পেলে দু'সেমিস্টারে পাবেন ১০০০ রিয়াল।
১১. ভারসিটিতে আসার পরেই পাবেন ২৪০০ রিয়াল।
১২. গ্রাজুয়েট হলে পাবেন ২৪০০ রিয়াল।
শেষ ক'টি কথা -
১.
এগুলো হচ্ছে জাস্ট আবেদন প্রক্রিয়া কথা৷ কোন বিশ্ববিদ্যালয় আপনাকে সিলেক্ট করলে পরবর্তী করণীয় কি হতে পারে, ইত্যাদি তখনই জানিয়ে দেওয়া হবে৷ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে আমাদের দেশীয় ভাইয়েরা আপনাদের সহযোগিতার জন্য সর্বদা এগিয়ে আছেন৷
২. উপরে বর্ণিত কাগজপত্র প্রস্তুত করতে সর্বোচ্চ এক সপ্তাহ লাগার কথা৷ তারপর, বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে গিয়ে অনলাইনে আবেদন জমা দিতে হয়। নিজে না পারলে পরিচিত কারো সহযোগিতা নিতে পারেন। বিস্তারিত তথ্য গুগল করে বিশ্ববিদ্যালয় ওয়েবসাইট থেকে জেনে নিবেন৷
৩. সপ্তাহ দশ দিনের ভিতরে কোন ভাই যদি কাগজপত্র রেডি করতে পারেন। অর্থাৎ, সম্পূর্ণ কাজ শেষ করে পিডিএফ কপি আমাকে সেন্ড করতে পারেন, তাহলে আমি নিজেই আবেদন করে দিব ইনশাআল্লাহ। এর পরে আমি ব্যস্ত সময় পার করবো ; কেহ চাইলেও সে সুযোগ থাকবে না৷
৪. কাগজগুলা ম্যানেজ করা একদম সহজ৷ ধীরেসুস্থে কাগজপত্র রেডি করে আল্লাহর নামে আবেদন করবেন। আশাকরি, কোন না কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স পেয়ে যাবেন ইনশাআল্লাহ। মনে রাখবেন, আবেদন মানেই নিশ্চিত চান্স না। এটা সম্পূর্ণ আপনার ভাগ্যের উপর নির্ভর করে। আমি জাস্ট আপনাদেরকে পথ বাতলিয়ে দিচ্ছি।
সকলের জন্য দোয়া ও শুভ কামনা রইল!

Post Credit: Fb Page

No comments:

Post a Comment